You are currently viewing Durgapur : মামি শাশুড়িকে কুপ্রস্তাব, বাধা দেওয়ায় মামাশ্বশুরকে খুন, গ্রেফতার জামাই

Durgapur : মামি শাশুড়িকে কুপ্রস্তাব, বাধা দেওয়ায় মামাশ্বশুরকে খুন, গ্রেফতার জামাই

মামি শাশুড়িকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিল ভাগ্নি জামাই। প্রতিবাদ করেন মামা শ্বশুর। অভিযোগ, এরপরেই পাথর দিয়ে থেঁতলে মামাশ্বশুরকে খুন করে দেয় ভাগ্নি জামাই।

——————————————-

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ২ অক্টোবর ২০২৩: মামি শাশুড়িকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিল ভাগ্নি জামাই। প্রতিবাদ করেন মামা শ্বশুর। অভিযোগ, এরপরেই পাথর দিয়ে থেঁতলে মামাশ্বশুরকে খুন করে দেয় ভাগ্নি জামাই। গত বছর কালীপুজোর দিন ভয়াবহ এই ঘটনাটি ঘটেছিল পশ্চিম বর্ধমান (Paschim Bardhaman) জেলার কাঁকসা থানার ভালুককোন্দায়। 

গত বছর কালীপুজোর দিন ভালুককোন্দার জঙ্গলে কাঁকসার রূপগঞ্জের বছর ৩৮ এর পিন্টু বাউরির ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। উদ্ধার হয় তার নতুন বাইকটিও। সে সম্পর্কে শ্যামল বাউড়ির মামা শ্বশুর। পুলিশ তদন্ত শুরু করে। শেষ পর্যন্ত প্রায় এক বছর পর রবিবার রাতে ফরিদপুর (লাউদোহা) থানার ধবনি থেকে গ্রেফতার করা হয় শ্যামলকে।

পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পারে পারিবারিক কারণেই এই খুনের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ জানায়, পিন্টুর স্ত্রীকে দীর্ঘদিন ধরে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল ভাগ্নি জামাই শ্যামল। ঘটনা জানাজানি হতেই প্রতিবাদ করেন পিন্টু। অভিযোগ, এরপরেই পিন্টুকে ভালুককোন্দার জঙ্গলে ডেকে নিয়ে গিয়ে পাথর দিয়ে থেঁতলে খুন করে ভাগ্নি জামাই শ্যামল।

আরও পড়ুন- টোল ফাঁকা, গলে যাচ্ছে কোটি কোটি টাকা

এমন কি এই খুনের কথা ফোন করে পিন্টুর স্ত্রীকে জানিয়ে শ্যামল শাসানি দেয়, কাউকে এ’কথা জানালে ফল ভালো হবে না। পুরো পরিবার শেষ করে দেওয়া হবে। পুলিশ শেষ পর্যন্ত তদন্ত চালিয়ে প্রায় এক বছর পরে সেই খুনের কিনারা করেছে। গ্রেফতার করা হয়েছে শ্যামলকে। পুলিশি হেফাজত চেয়ে ধৃতকে দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Reply