মানুষের করের টাকায় ঘর সাজাবেন পুর প্রশাসক! উত্তাল দুর্গাপুর

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ৯ জুন ২০২৩: মানুষের করের টাকায় ঘর সাজাবেন প্রাক্তন মেয়র তথা পুরসভার প্রশাসক অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায়! সেজন্য রীতিমতো টেন্ডার ডাকা হয়েছে। জানাজানি হতেই অবশ্য বদলালেন সুর! বাতিল হল টেন্ডার।  অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায় জানালেন, একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। আর, এই ‘ভুল বোঝাবুঝি’র দায় তিনি চাপালেন পুরসভার আধিকারিকদের ঘাড়ে।

২০২১ সালের ডিসেম্বরে মেয়র হিসাবে দায়িত্ব পান অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায়। তারপর শেষ হয়েছে পুরসভার বোর্ডের মেয়াদ। এখন তিনি পুরসভার প্রশাসক। জানা গিয়েছে, পুরসভার যে ঘরটিতে তিনি বসেন সেখানে বাস্তু মেনে সাজানো হবে। সেজন্য ডাকা হয়েছিল টেন্ডার। জানাজানি হতেই দুর্গাপুরে নিন্দার ঝড়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সিটি সেন্টারের এক বাসিন্দা বলেন, ‘‘দিদি ক্ষমতায় আসায় ভেবেছিলাম শহরের রূপ ফিরবে। কিন্তু কী হল? বিধানগরের মূল রাস্তাঘাট বেহাল দশা। শহরের বহু রাস্তায় আলো জ্বলে না। সে সব না দেখে, মানুষের করের টাকায় ঘর সাজানো হলে কিছুই বলার নেই!’’

বিজেপি নেতা তথা প্রাক্তন কাউন্সিলর চন্দ্রশেখর বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘দুর্গাপুরবাসীর করের টাকায় এসব করার কথা মাথায় আসে কী করে? উনি ঘরের কোন প্রান্তে বসলে চেয়ার সুরক্ষিত থাকবে, সেটা তিনি নিজের টাকায় করুন। তবে চেয়ারের চারটি পায়া নড়বড়ে হয়ে গিয়েছে। তাই এভাবে আর বাঁচা যাবে না।’’

যদিও অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, মেয়রের অফিসের কাজ বলে পুরসভার আধিকারিকদের ধারণা হয়েছিল, এটা অফিসিয়াল খরচের মধ্যে যাবে। তাই টেন্ডারটি করে ফেলেছিলেন তাঁরা। তিনি আরও জানান, টেন্ডার বাতিল করে দিয়েছেন। এই জ্যোতিষীর খরচ তিনি নিজে ব্যক্তিগতভাবে বহন করবেন বলে জানান।

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt