হাইকোর্টের নির্দেশে ২৩ বছর পর ক্ষতিপূরণ পেলেন জমিদাতা

দুর্গাপুর দর্পণ, কলকাতা, ২১ জানুয়ারি ২০২৪: হাইকোর্টের নির্দেশে ২৩ বছর পর ক্ষতিপূরণ পেলেন জমির মালিক। গত বছরের জুনে কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গেল বেঞ্চের বিচারপতি শুভ্রা ঘোষ এক জমি অধিগ্রহণ মামলায় জমিদাতাকে দু’মাসের মধ্যে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। ছয় মাস পেরিয়ে গেলেও তিনি ক্ষতিপূরণ পাননি। তাই আদালত অবমাননার মামলা দাখিল করেন জমিদাতা।

চলতি সপ্তাহে বিচারপতি শুভ্রা ঘোষ তাঁর আগেকার নির্দেশ কার্যকর না হওয়ার জন্য কার্যত ক্ষোভ উগরে দেন এবং দ্রুত তা কার্যকর করার নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশে জমিদাতা আপাতত প্রায় দশ লক্ষ টাকা পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন মামলাকারীর আইনজীবী বৈদূর্য ঘোষাল।

শেষ পর্যন্ত প্রায় ২৩ বছর পর আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে ক্ষতিপূরণ পেলেন উত্তর দিনাজপুরের সন্তোষ বিশ্বাস। ২০০০ সালে তিস্তা ব্যারাজ প্রকল্পে ১৮৯৪ সালের ‘জমি অধিগ্রহণ আইন অনুযায়ী’ অধিগ্রহণ করেছিল রাজ্য সরকার। জমি অধিগ্রহণ হলেও কোনও রকম আর্থিক ক্ষতিপূরণ পাননি বলে অভিযোগ ওঠে। বিভিন্ন সরকারি দফতরে ঘুরে কাজ হয়নি। ২০১৪ সালে জেলাশাসকের কাছ আবেদন জানান তিনি। প্রশাসন ২০১৩ সালের নতুন জমি অধিগ্রহণ আইন অনুযায়ী জমিটি সরাসরি কিনে নেবার কথা বললেও কোনও সদর্থক পদক্ষেপ নেয়নি বলে অভিযোগ ।

অবশেষে সন্তোষবাবু কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। মামলাকারীর আইনজীবী বৈদুর্য ঘোষাল জানান, হাইকোর্টের নির্দেশে ক্ষতিপূরণ না পাওয়ায় আদালত অবমাননার মামলা করেছিলেন সন্তোষবাবু। সোমবার আগেকার নির্দেশ কার্যকর করার নির্দেশ দেন বিচারপতি।(বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!