রাজা ইছাই ঘোষের দেউলের শিবলিঙ্গে বন্ধ পুজো! তরজা তুঙ্গে

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ১ অক্টোবর ২০২৩: কাঁকসার জঙ্গলমহলে রাজা ইছাই ঘোষের দেউলের শিবলিঙ্গে বন্ধ পুজো। রাঢ়বঙ্গের অতি প্রাচীন এই মন্দিরের পুজো বন্ধ বিগত প্রায় দেড় মাস ধরে। দেউল পুরাতত্ত্ববিভাগের আওতাধীন।দেউলের দেখভালের দায়িত্বে রয়েছেন অস্থায়ী কর্মী তপন মন্ডল। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, তপন মন্ডল জোর করে পুজো বন্ধ করে দিয়েছে। শ্রাবণ মাসেও শিবের মাথায় জল ঢালতে পারেননি ভক্তেরা। ফলে ক্ষোভে ফুঁসছে গ্রামবাসীরা। অস্থায়ী কর্মীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ বাড়ছে স্থানীয়দের। স্থানীয় বাসিন্দা বাদশা মাল জানান,  ঐতিহ্যবাহী দেউলের শিবলিঙ্গে পুজো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। দেউলের প্রবেশপথের তালা দিয়ে দেওয়া হয়। তিনি আরও জানান, দেউলের দেওয়ালে আশেপাশে চতুর্দিকে গজিয়ে উঠেছে বিভিন্ন গাছ। ধ্বংস হতে বসেছে টেরাকোটার নকশা। তিনি আরও অভিযোগ করেন, পুরাতত্ত্ব বিভাগ দায়িত্বে থাকলেও, চরম উদাসীন এই দপ্তর। পিন্টু রায় জানান, গ্রামবাসীরাই দীর্ঘদিন ধরে পুজো করেন ওই শিবলিঙ্গে। হঠাৎ বন্ধ হয়ে গেল পুজো। সরিয়ে দেওয়া হয়েছে প্রণামি বাক্স। ভক্তেরা পুজো দিতে পারছেন না।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, অস্থায়ী কর্মী তপন মন্ডল। তিনি জানান, পুরোহিত নিজেই পুজো করতে আসেন না। তিনি আরও বলেন, কাউকে পুজো করতে বারণ করা হয় নি। পুরাতত্ত্ব বিভাগের সংরক্ষণ আধিকারিক গঙ্গাধর দাস জানিয়েছেন, দেউলের রক্ষণাবেক্ষণ তাদের দায়িত্ব থাকলেও ঠাকুরের পুজোর দায়িত্ব তাদের নয়। তিনি পুরো বিষয় খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন।

কাঁকসা ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি তথা তৃণমূলের ব্লক সভাপতি ভবানী ভট্টাচার্য বলেন, দেউলের দায়িত্বে কেন্দ্রীয় সংস্থা। দেউলের শিবলিঙ্গের কেন পুজো বন্ধ করে দেওয়া হল এবং কেন সংস্কার করা হচ্ছে না দেউল সেই বিষয়টি নিয়েও তারা কেন্দ্রীয় সংস্থাকে চিঠি পাঠাবেন। দ্রুত শিবপুজোর ব্যবস্থা করা হবে বলে তিনি আশ্বাস দিয়েছেন। পাল্টা কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা ইন্দ্রজিৎ ঢালী। তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রাচীন ঐতিহ্যকে হেরিটেজ স্বীকৃতি দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু তৃণমূলের কাজ বদনাম করা।

 

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt