কাঁকসায় অরক্ষিত সরকারি প্রকল্প দুষ্কৃতীদের মুক্তাঞ্চল

সনাতন গড়াই, দুর্গাপুর দর্পণ, কাঁকসা, ১ জানুয়ারি ২০২৪: দরজায় তালা নেই। ঘরের ভেতরে, বাইরে পড়ে মদের বোতল। সদ্য নির্মিত পঞ্চায়েতের প্রকল্প দুষ্কৃতীদের ঠেকে পরিণত হয়েছে। হুঁশ নেই প্রশাসনের। এমন অভিযোগ তুলে ক্ষোভে ফুঁসছেন স্থানীয়রা। পঞ্চায়েতের তরফে বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।পশ্চিম বর্ধমানের (Paschim Bardhaman) অন্যতম জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র কাঁকসার বনকাটির দেউল। দেউলের পিকনিক স্পটকে আবর্জনা মুক্ত করতে ২০২৩-২৪ অর্থবর্ষে বনকাটি গ্রাম পঞ্চায়েতের উদ্যোগে গৌরাঙ্গপুর এবং খেড়োবাড়ির মাঝামাঝি অজয় নদের পাড়ে নির্মিত হয়েছে কঠিন ও তরল বর্জ্য নিষ্কাশন প্রকল্পের অধীন তরল বর্জ্য গ্রহণ কেন্দ্র।

জানা যায়, ১ লক্ষ ৫৭ হাজার ৮৩৫ টাকা ব্যয় করে গড়া হয় এই প্রকল্পটি। কিন্তু সরকারি প্রকল্পের দরজায় নেই তালা। রক্ষণাবেক্ষণেরও কেউ নেই। নভেম্বরের শুরু থেকে দূর-দূরান্তের পর্যটকরা পিকনিক করতে আসেন। লক্ষ্য ছিল এলাকার এবং পিকনিক করার পর পড়ে থাকা পাতা সহ আবর্জনা সংগ্রহ করে ওই তরল বর্জ্যগ্রহণ কেন্দ্রে জৈব সার তৈরি করা হবে।

সেই প্রকল্পের কাজ শুরুই হয়নি। প্রকল্পটি এখন দুষ্কৃতীদের মদ্যপানের অন্যতম জায়গায় পরিণত হয়েছে। পিকনিক করতে এসেও মদ্যপানের জন্য অনেকে সেখানে গিয়ে ঢুকছেন। দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম বাড়ছে। ভেতরে পড়ে রয়েছে বহু মদের বোতল। পঞ্চায়েতের কোনও নজরদারি নেই বলেও অভিযোগ স্থানীয়দের। যদিও বনকাটি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান তাবাসুম খাতুন বলেন, আমি বিষয়টি জানলাম। খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt