অন্ডালের সন্দীপ কি পারবেন ‘উদয়ন পণ্ডিত’ হতে? দেখুন ‘কিশলয় এর গল্প’

স্কুলের কথা বললেই ওরা চুপ! শিক্ষা কী, সেটা ওরা জানেই না।পৃথিবী আধুনিক হয়েছে। কিন্তু আজও বদলায়নি বহু প্রান্তিক এলাকা। কত শত শৈশব ধ্বংস হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

——————————————-

সনাতন গড়াই, দুর্গাপুর দর্পণ, অন্ডাল, ৬ জানুয়ারি ২০২৪: ‘কিশলয় এর গল্প’। প্রধান চরিত্রে পশ্চিম বর্ধমান জেলার (Paschim Bardhaman) দুর্গাপুরের অন্ডালের সন্দীপ চক্রবর্তী। পরিচালক সোনা চাঁদ সামন্তের এই ছবি বড় পর্দায় মুক্তি পাবে মে মাসে। কুসংস্কার, সাম্প্রদায়িকতা আর কুশিক্ষা থেকে মরমিয়া বাউলের সুরে শিশুদের বের করে আনার গল্প বলবে এই ছবি।

পৃথিবী আধুনিক হয়েছে। কিন্তু আজও বদলায়নি বহু প্রান্তিক এলাকা। কত শত শৈশব ধ্বংস হচ্ছে প্রতিনিয়ত। সেই শৈশব যখন যৌবনে উন্নীত হচ্ছে, তখন যুক্ত হয়ে পড়ছে নানা অসামাজিক কাজে। শুক্রবার অন্ডালের চিত্তরঞ্জন ইনস্টিটিউটে তিন দিনব্যাপী নাট্য উৎসবে এই সিনেমার শিল্পীরা অংশ নেন। পরিচালক জানান, আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে বিভিন্ন পুরস্কার পেয়েছেন। সম্প্রতি দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে ‘কিশলয় এর গল্প’।

পরিচালক আরও জানান, যখন বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, পুরুলিয়া, বাঁকুড়ার প্রান্তিক এলাকায় শুটিংয়ের জন্য যেতেন তখন দেখতেন শিশুদের পকেট থেকে বের হচ্ছে দেশলাই, বিড়ি, সিগারেট। স্কুলের কথা বললেই ওরা চুপ! শিক্ষা কী, সেটা ওরা জানেই না। পরিচালক ছবিতে দেখিয়েছেন, জমিতে ধানের বীজ রোপনের পর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কীভাবে বেড়ে ওঠে ধানগাছ, পেকে ওঠে ধান। কিন্তু সময় এগিয়ে গেলেও বদলায় না প্রান্তিক এলাকার ছবিটা। থিয়েটারের শিল্পীরা অংশ নিয়েছেন এই ছবিতে। প্রধান চরিত্রে শিক্ষকের ভূমিকায় রয়েছেন সন্দীপ। প্রান্তিক এলাকার শিশুদের স্কুলে নিয়ে গিয়ে তাদের জীবন সাক্ষরতার আলোয় ভরিয়ে দেওয়া যায়, এই ছবি তা তুলে ধরবে। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!