পানাগড় শিল্পতালুকে শাসক দলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ, উত্তেজনা

দুর্গাপুর দর্পণ, বুদবুদ, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪: ফের সিন্ডিকেটের দাপট দুর্গাপুরের (Durgapur) পানাগড় শিল্পতালুকে। বিবাদে জড়ালো শাসক দলেরই দুই গোষ্ঠী। ক্ষমতা দখলের লড়াই ঘিরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে উত্তপ্ত পানাগড় শিল্পতালুক। বুধবার সকালের ঘটনা। বুদবুদ থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

রাষ্ট্রায়ত্ত এক গ্যাস সংস্থার একটি কাজে অনলাইন টেন্ডার পান এক ঠিকাদার। তৃণমূলের এক গোষ্ঠীর অভিযোগ, ঠিকাদার বাইরের লোকজনদের নিয়ে কাজ করতে চাইছেন। এমনকি নির্মাণ সামগ্রীও আনছেন বাইরে থেকে। এর ফলে শিল্প গড়তে যাঁরা জমি দিয়েছেন তাঁরা বঞ্চিত হচ্ছেন। এটা তাঁরা হতে দেবেন না।

এই দাবি নিয়েই দুই পক্ষের মধ্যে বচসা থেকে হাতাহাতি শুরু হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে বুদবুদ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। শান্ত করার চেষ্টা করে দুই পক্ষকে। কিন্তু দুই গোষ্ঠী রাস্তার দু’ধারে দাঁড়িয়ে স্লোগান, পাল্টা স্লোগান দিতে থাকে। টেন্ডার পাওয়া ঠিকাদারকে কাজে ঢুকতে বাধা দেয় এক পক্ষ। যদিও শেষ পর্যন্ত ঠিকাদারের ছ’জনকে ঢুকতে দেন তাঁরা। বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়ন করা হয়েছে শিল্প তালুকের ওই রাষ্ট্রায়ত্ত গ্যাস সংস্থার সামনে।

তৃণমূল নেতা জ্যোতির্ময় বাগদির অভিযোগ করেন, জমিদাতাদের কাজ না দিয়ে ব্লক সভাপতি আব্দুল লালন শেখের নেতৃত্বে বহিরাগতদের নিয়োগ করা হচ্ছে। ব্লক সভাপতির অনুগামী জগবন্ধু বাউরি দাবি করেন, রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থায় একটি ঠিকাদার সংস্থা কাজ পেয়েছিল। সেই কাজেরই সূচনা করতে এসেছিলেন তাঁরা। জমিদাতারাই কাজ পাবে, সেই আলোচনাই চলছিল। যারা এই ঘটনা ঘটাচ্ছে তারা কোন কিছু না জেনেই করছে বলেও পাল্টা অভিযোগ করেন। ব্লক সভাপতি আব্দুল লালন শেখ বলেন, “তৃণমূলের কোনো গোষ্ঠীদ্বন্দ নেই। বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তাঁরা পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছেন।” প্রাক্তন ব্লক সভাপতি রামকৃষ্ণ ঘোষ বলেন, তিনি বিষয়টি জানেন না। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!