দুর্গাপুরে সরকারি স্কুলে সাপের কামড়ে আদিবাসী ছাত্রের মৃত্যু, তুমুল বিক্ষোভ

হস্টেলে ফেরার পথে স্কুলের সামনে তাকে চন্দ্রবোড়া সাপ দংশন করে।

——————————————-

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩: সাপের কামড়ে সম্প্রতি সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে পশ্চিম বর্ধমান জেলার (Paschim Bardhaman) দুর্গাপুরের ফুলঝোড়ের পন্ডিত রঘুনাথ মুর্মু আবাসিক বিদ্যালয়ে। স্কুল চত্বরে আগাছা সাফাই, বেহাল আবাসনের সংস্কার প্রভৃতি দাবিতে সোমবার স্কুলে গিয়ে তালা দিয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের আটকে রেখে তুমুল বিক্ষোভ দেখালেন অভিভাবকেরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে আসে নিউ টাউনশিপ থানার পুলিশ। আসেন মহকুমা প্রশাসনের তরফে দুই আধিকারিক।

জানা গিয়েছে, ১ ডিসেম্বর সপ্তম শ্রেণীর  ছাত্র কুলটির সিদ্ধার্থ মারান্ডি নামের পড়ুয়া স্কুলে পরীক্ষা দেওয়ার পর বাইরের দোকানে গিয়েছিল। তারপর সেখান থেকে হস্টেলে ফেরার পথে স্কুলের সামনে তাকে চন্দ্রবোড়া সাপ দংশন করে। অভিভাবকদের অভিযোগ, দীর্ঘ সময় ফেলে রাখার পরে তাকে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে স্থানান্তর করা হয় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। ৬ ডিসেম্বর তার মৃত্যু হয়।

তারপর থেকেই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে আবাসিক পড়ুয়ারা। অভিভাবকদের অভিযোগ, সিদ্ধার্থের মৃত্যুর পরে কেটে গিয়েছে আরও এক সপ্তাহ। কিন্তু এখনও আগাছা সাফাইয়ের কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। স্কুলটি গড়ে ওঠে ২০০৫ সালে। স্কুল সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্তমানে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের ২৭৮জন আদিবাসী পড়ুয়া এই আবাসিক স্কুলে থেকে পড়াশোনা করে। স্কুল ও হস্টেল চত্বর আগাছায় ভরে যাওয়ায় সাপের উপদ্রব বেড়েছে। পড়ুয়াদের কোনও নিরাপত্তা নেই বলে অভিযোগ করেন অভিভাবকেরা।

সোমবার নিরাপত্তা ও সাফাইয়ের দাবিতে স্কুলের ভিতর তালা দিয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা। তাঁদের দাবি, সিদ্ধার্থের মৃত্যুর পরে অনেক অভিভাবক ছেলে-মেয়েদের হস্টেল থেকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে গিয়েছেন। স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাবর্ণী সেনশর্মা বলেন, ‘‘স্কুল ও হস্টেলের এই পরিস্থিতি নিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে একাধিকবার জানানো হয়েছে।’’ এদিন স্কুলে পরিদর্শনে আসা মহকুমাশাসকের দফতরের আধিকারিক দীপক সরকার দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt