পথনাটিকার মাধ্যমে বিশ্ব ও জাতীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরল BCREC-র পড়ুয়ারা

কলেজের দশটি বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীরা শহরের ফুলঝোড় মোড়ে পথনাটিকা পরিবেশন করে। বায়ু, জল, মাটি, শব্দ সহ দূষণের নানা দিক নিয়ে কলেজের পড়ুয়ারা এই নাটিকাগুলো রচনা করেছে।

——————————————-

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ২ ডিসেম্বর ২০২৩: প্রতিবছর আজকের দিনটিতে অর্থাৎ ২ ডিসেম্বর দিনটিকে আমাদের দেশে জাতীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ দিবস (National Pollution Control Day) হিসেবে পালন করা হয়ে থাকে। ১৯৮৪ সালের আজকের দিনেই ভোপালের সেই ভয়াবহ গ্যাস দুর্ঘটনা ঘটেছিল। তাই আজকের দিনটিকে জাতীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ দিবস হিসেবে পালন করে পরিবেশ সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করা হয়।

পরিবেশ বাঁচাতে, দূষণ মুক্ত পরিবেশ গড়ে তুলতে আমাদের দেশে বহু আইন রয়েছে। কিন্তু তা সত্বেও দূষণের যেন বিরাম নেই! কীভাবে দূষণ মুক্ত পরিবেশ গড়ে তোলা যায়, কীভাবে আমরা সবাই মিলে পরিবেশকে বাঁচাতে পারি, আমাদের মধ্যে সচেতনতার কত অভাব! বিশ্ব ও জাতীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ দিবসের একদিন আগে শুক্রবার পথ নাটিকার মাধ্যমে সেই বার্তাই তুলে ধরল পশ্চিম বর্ধমান জেলার (Paschim Bardhaman) দুর্গাপুরের Dr. B. C. Roy Engineering College (BCREC) এর পড়ুয়ারা।

কলেজের দশটি বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীরা শহরের ফুলঝোড় মোড়ে পথনাটিকা পরিবেশন করে। বায়ু, জল, মাটি, শব্দ সহ দূষণের নানা দিক নিয়ে কলেজের পড়ুয়ারা এই নাটিকাগুলো রচনা করেছে। একটি নাটকের বিষয় ছিল সামাজিক দূষণ। সোশ্যাল নেটওয়ার্কে আসক্তি, স্বার্থপরতা, নারী স্বাস্থ্য নিয়ে নানা ট্যাবু  প্রভৃতি বিষয় ওই নাটকে তুলে ধরা হয়। এদিনের কর্মসূচীতে সার্বিকভাবে বিশেষ ভূমিকা নিয়েছিল কলেজের এনসিসি শাখাও।

পতাকা নাড়িয়ে কর্মসূচীর সূচনা করেন কলেজের অধ্যক্ষ ডঃ সঞ্জয় এস পাওয়ার। এরপর অমিতাভ চক্রবর্তী, চিফ, কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স এবং অমিতাভ ঘোষ, ম্যানেজার, পাবলিক রিলেশনস, পরিবেশ দূষণের উপর লেখা প্রথম বই ১৯৬২ সালে প্রকাশিত Rachel Carson এর ‘সাইলেন্ট স্প্রিং’ থেকে শুরু করে বর্তমানে দুবাইয়ে আয়োজিত United Nations Climate Conference COP- 28 এর উল্লেখ করে পরিবেশ সচেতনতার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন।

ফুলঝোড়ের পরে কলেজ ক্যাম্পাসেও তিনটি পথনাটিকা পরিবেশন করে পড়ুয়ারা। অধ্যক্ষ ডঃ সঞ্জয় এস পাওয়ার, সহকারী অধ্যক্ষ ডঃ এমএফ হোসেন বিশ্বব্যাপী পরিবেশ দূষণের বিরুদ্ধে পড়ুয়াদের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। এই কর্মসূচীর জন্য পড়ুয়াদের যথাযথভাবে প্রস্তুত করেন ডঃ সুনীতা দে, অধ্যাপক দেবাদ্রিতা সেন, সর্বজিৎ লাহিড়ী, ডঃ তানিয়া চক্রবর্তী সহ Department of Basic Science & Humanities এর অন্যান্য অধ্যাপকেরা। নেতৃত্বে ছিলেন Department of Basic Science & Humanities এর বিভাগীয় প্রধান ডঃ সৌরভ রঞ্জন দাস। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওই বিভাগের অধ্যাপক ডঃ সুকল্পা দে, সুকর্ণা দে মন্ডল, শ্রীজাত সেন শর্মা। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!