কুনুর নদীর কী সত্যিই অবলুপ্তি ঘটবে?

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩: কুনুর নদীর (Kunur River) কী সত্যিই অবলুপ্তি ঘটবে? এখনই ব্যবস্থা না নিলে ভবিষ্যতে সত্যিই এই নদী অস্তিত্ব হারাবে। এমনটাই মনে করে ‘কুনুর নদী বাঁচাও সংগ্রাম সমিতি’। বৃহস্পতিবার সমিতির উদ্যোগে পশ্চিম বর্ধমান জেলার (Paschim Bardhaman) দুর্গাপুর-ফরিদপুর ব্লকের কালিকাপুরে আলোচনা সভায় এমনই আশঙ্কা সামনে এল।

কুনুর নদীর উৎপত্তি এই ব্লকেরই ঝাঁঝরা গ্রামের কাছে। সেখান থেকে দুর্গাপুর-ফরিদপুর, কাঁকসা, আউশগ্রাম ব্লক হয়ে মঙ্গলকোট পর্যন্ত মোট ১১২ কিলোমিটার বয়ে গিয়ে মঙ্গলকোটের কোগ্রামে অজয়ে মিশেছে এই নদী। বর্ষায় দু’কূল ছাপিয়ে কাঁকসা, আউশগ্রাম, মঙ্গলকোটের বহু জায়গা জলমগ্ন হয়। কারণ, নদীখাত নানা কারণে মজে গিয়েছে।

দুর্গাপুর-ফরিদপুর ব্লকের কালিকাপুর, প্রতাপপুর, খাটগোড়িয়া, বড়গোড়িয়া, কাঁটাবেড়িয়া, ধবনী, লবণাপাড়া প্রভৃতি গ্রামের পাশ দিয়ে কুনুর নদী বয়ে গিয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, পলি জমে নদী মজে গিয়েছে। তার উপর একটি গ্যাস সংস্থার নোংরা জল নদীতে পড়ে জল দূষিত হচ্ছে। সেই জলে চাষের কাজ হচ্ছে না। এদিনের সভা থেকে অবিলম্বে কুনুর নদীর সংস্কারের দাবি জানানো হয় প্রশাসনের কাছে। সভায় উপস্থিত ছিলেন পান্ডবেশ্বরের প্রাক্তন বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারি। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt