অমৃত বচন: সারাক্ষণ কেন এত ভয়ে ভয়ে থাকা? যতক্ষণ আছো বিন্দাস বাঁচো…

আজ আছি কাল নেই: রোজ একবার ভাব—আজ আছি কাল নেই। কাঠবিড়ালীর মতো কোটরে কার জন্য বাদাম সঞ্চয় করছ? জ্ঞান ও বিদ্যাকে দুখণ্ড কর। জীবিকার জন্য ব্যবহারিক জ্ঞানের প্রয়োজন আছে। জীবনকে সহজ করার জন্য যন্ত্রবিজ্ঞানের প্রয়োজন আছে। ‘খালি পেটে ধর্ম হয় না।’ কিন্তু ভোগের সংসারে আচারের আমের মতো জড়িয়ে থাকলে হবে না।

সাত্ত্বিকের সংসার চাই। অস্ত্র হলো বিচার—নিত্য অনিত্য বিচার। জয় করতে হবে ভয়। আসক্তিই ভয়ের কারণ। আকাঙ্খা হলো ধিকিধিকি আগুন। আসকারা পেলেই যা বাড়ে— কাম, বিষয়তৃষ্ণা, আলস্য, অহঙ্কার। বিচার হলো সেই স্পন্দন যা বিবেকে প্রাণ প্রতিষ্ঠা করে। বিবেক সেই অমোঘ যুক্তি দেয়, এগিয়ে দেখ। জীবনের পাওনা ক্রমেই বাড়বে।

অনিত্য থেকে নিত্যের দিকে নিয়ে যাবে। বিষয়ানন্দ থেকে দিব্যানন্দে। ধর্ম মানে সৎ, সুন্দর, চৈতন্যময় জীবনের আহ্বান। স্বজনে নির্জনতার সন্ধান, প্রকৃত বন্ধুর সন্ধান। চিনি থেকে বালি সরাও,দুধ থেকে জল। অনিত্য থেকে নিত্যকে বের কর। বৈরাগ্যে শান দাও। অহং আমিকে দাস আমি কর। নিজেকে তৈরি কর। ভক্তির ময়ান দিয়ে সংযমে ঠাস, সঙ্কল্পের আঁচে ফেল, দেবভোগ্য হও। মৃত্যু নয়, মুক্তির আনন্দে শবরূপী জীবনের ওপর নাচবে।—(সংকলক: সন্দীপ সিনহা)

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt