ফের মানবিকতার নজির গড়লেন দুর্গাপুরের অবন্তিকা

ভবঘুরেদের দেখতে পেলে তিনি তাদেরপরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। এরপর খোঁজ খবর করে পরিবারের হাতে ফিরিয়ে দেন।

——————————————-

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩: ফের মানবিকতার নজির গড়লেন পশ্চিম বর্ধমানের (Paschim Bardhaman) দুর্গাপুরের অবন্তিকা শ্যাম রায় চৌধুরী। একটি পশুপ্রেমী সংগঠনের তরফে তিনি বরাবর রাস্তার সারমেয়দের সেবা শুশ্রুষা করে থাকেন। এছাড়াও অন্যান্য প্রাণীরাও বিপাকে পড়লে উদ্ধারের জন্য ডাক পান অবন্তিকা। একই ভাবে তিনি রাস্তার ভবঘুরেদেরও পাশে থাকেন। ভবঘুরেদের দেখতে পেলে তিনি তাদের পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। এরপর খোঁজ খবর করে পরিবারের হাতে ফিরিয়ে দেন।

গত ১৭ ডিসেম্বর তিনি খবর পান, এনটিপিএস থানা এলাকায় একটি বেসরকারি স্কুলের সামনে এক মানসিক ভারসাম্যহীন ভবঘুরে ঘুরে বেড়াচ্ছে। খবর পেয়েই তৎক্ষণাৎ পৌঁছে যান অবন্তিকা। ঠান্ডার হাত থেকে উদ্ধার করে তার নিরাপদ আশ্রয়ের ব্যবস্থা করেন। সহযোগিতা করে পুলিশ। অবন্তিকা ওই ভবঘুরের সঙ্গে কথা বলে উত্তরপ্রদেশের মির্জাপুর জেলার খোঁজ পান। এরপর ইন্টারনেটে সার্চ করে সেখানকার পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। শেষ পর্যন্ত খোঁজ মেলে ভবঘুরের পরিবারের।

বুধবার পুলিশের সহযোগিতায় ওই মানসিক ভারসাম্যহীন ভবঘুরেকে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন তিনি। জানা গিয়েছে, ওই ভবঘুরের নাম ধর্মেন্দ্র প্রধান। তার দাদা জানানন, ভাই প্রায় দু’বছর ধরে নিখোঁজ ছিলেন। বহু খোঁজাখুঁজি করেও তার খোঁজ মেলেনি। তাঁরা আশা প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত দুর্গাপুরের সমাজসেবী অবন্তিকার প্রচেষ্টায় ভাইকে ফিরে পেলেন। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!