বিএমএসের ছাঁটাই শ্রমিকদের ফিরিয়ে না হলে কাজ বন্ধের হুঁশিয়ারি বিজেপি বিধায়কের

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩: ভারতীয় মজদুর সংঘের (বিএমএস) শ্রমিকদের ছাঁটাই করে তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের কর্মীদের কাজে নেওয়া হচ্ছে। কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তৃণমূল নেতাদের যোগসাজসেই এটা হচ্ছে। এমনই অভিযোগ তুলে কারখানার সামনে বসে কারখানা কর্তৃপক্ষকে কার্যত হুঁশিয়ারি দিতে দেখা গেল দুর্গাপুরের বিজেপি বিধায়ক লক্ষ্মণ ঘোড়ুইকে। সংগঠনের আরও দাবি, ৫০ শতাংশ কর্মী নিতে হবে ভারতীয় মজদুর সংঘের থেকে। তা না হলে কারখানা স্তব্ধ করে দেওয়ার হুঁশিয়ারিও দেন বিধায়ক।

গত ১৭ অক্টোবর দুর্গাপুর থার্মাল পাওয়ার স্টেশনের চার নম্বর ইউনিট সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে যায়। তখন কর্মহারা হয়ে পড়েন বহু অস্থায়ী শ্রমিক। তাঁদের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়, পাঁচ নম্বর ইউনিটের কাজ শুরু হলে কাজে ফিরিয়ে নেওয়া হবে। কিন্তু পাঁচ নম্বর ইউনিট শুরু না হলেও হঠাৎ করে তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের ৮০ জন শ্রমিককে কাজে ফিরিয়ে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ। কিন্তু ভারতীয় মজদুর সংঘের শ্রমিকদের কাজে ফিরিয়ে নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।

বুধবার সকাল থেকে কারখানার গেটের সামনে আন্দোলনে নামে ভারতীয় মজদুর সংঘ। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, “কারখানা সম্প্রসারণ করতে হলে ভারতীয় মজদুর সংঘের শ্রমিকদের কাজে নিতে হবে। তৃণমূল নেতাদের মদতে কাজ করলে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটার হুঁশিয়ারি দেন। পাল্টা স্থানীয় প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর লোকনাথ দাস দাবি করেন, শ্রমিকদের কাজে ফেরানোর দাবিতে তারা কারখানা কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি করেছিলেন। দাবি মেনে ৮০ জনকে কাজে ফিরিয়ে নেন কর্তৃপক্ষ। যাদের কাজে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে তাঁরা সব দলের সাথেই যুক্ত বলে দাবি করেন। তিনি বলেন, সারা রাজ্যে বিজেপির কোন অস্তিত্ব নেই। তাই এসব ভিত্তিহীন অভিযোগ করছে।” (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt