অমৃত বচন: ধীর ব্যক্তি উদ্দেশ্য স্থির করলে তা সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত মোটেই থামেন না…

বিপদ ও সম্পদ: মহাসুভাষিতসংগ্ৰহ থেকে উদ্ধৃতি দিয়ে স্বামী জ্ঞানলোকানন্দজী লিখছেন—বড় মাপের মানুষের কাছে বিপদ ও সম্পদ দুটিই এসে উপস্থিত হয়। সাধারণ মানুষের বিপদ ও সম্পদ কোনটিই নেই। স্বামীজীর কথায় “বড় গাছেই বড় ঝড় লাগে।নিবু নিবু কাঠকে নেড়ে দিলে বেশি জ্বলে, সাপের মাথায় আঘাত লাগলে সে ফণা ধরে।” সেইজন্য আমাদের জীবনে যখন বিড়ম্বনা আসবে তখন যদি হতাশ না হয়ে বিড়ম্বনাগুলিকে অগ্ৰগতির পথে এক একটি মাইলফলক মনে করি তাহলে আর দুঃখ বা যন্ত্রণা থাকে না। এইজন্য বলা হয়—Failure is just a bend on the road, not the end of a journey.অর্থাৎ ব্যর্থতা হল পথের বাঁক মাত্র, যাত্রাপথের শেষ নয়।

স্বামীজী বলেছেন, আমাদের জীবনে বিড়ম্বনা এলে তাকে বরণ করে নিয়েই এর হাত থেকে নিষ্কৃতি পাবার চেষ্টা করতে হবে। এখানেই আমাদের দেবত্ব। আর একটি সুভাষিতে বলা হয়েছে: দেবতারা যখন সমুদ্র মন্থন করেছিলেন তখন মণিমাণিক্য উঠতে থাকলে তাঁরা সন্তুষ্ট হলেন না। যখন বিষ উঠল তখনও তাঁরা ভীত হলেন না। যতক্ষণ না অমৃত উঠল ততক্ষণ তাঁরা বিরত হলেন না। ধীর ব্যক্তি কোন একটি উদ্দেশ্য স্থির করলে তা সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত মোটেই থামেন না। (সংকলক: সন্দীপ সিনহা)

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt