ব্যবসায়ীর স্পাইনাল কর্ডের ভিতরে গুলির টুকরো, অস্ত্রোপচারে বিশাল সাফল্য মিশন হাসপাতালে

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ৯ জুন ২০২৩: স্পাইনাল কর্ডে আটকে গিয়েছিল দুষ্কৃতীদের ছোড়া গুলি। এর জেরে পায়ের কর্মক্ষমতা হারিয়ে যায় ধানবাদের মোটর যন্ত্রাংশের ব্যবসায়ী সঞ্জীবানন্দ ঠাকুরের। প্রাণসংশয় তো ছিলই। পশ্চিম বর্ধমানের (Paschim Bardhaman) দুর্গাপুরের মিশন হাসপাতালে (Mission Hospital Durgapur) নিউরোসার্জেন বিশেষজ্ঞ ডাঃ সত্যজিৎ দাসের তত্বাবধানে সফল অস্ত্রোপচার করে স্পাইনাল কর্ডের ভিতর থেকে গুলি বের করা হল সঞ্জীবানন্দের। এখন তিনি অনেকখানি সুস্থ। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে দু-একদিনের মধ্যে তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হতে পারে।

জানা গিয়েছে, ধানবাদের নয়া বাজারে সঞ্জীবানন্দের একটি দোকান রয়েছে। সোমবার রাত ৮.৪৫ নাগাদ দোকান বন্ধ করে বাইকে করে সসুনিলেভায় নিজের বাড়িতে যাচ্ছিলেন তিনি। তিনি যখন ধইয়ার কাছে পৌঁছান, ঠিক সেই সময়েই তাঁকে পিছন থেকে গুলি করে দুষ্কৃতীরা। একটি গুলি তাঁর স্পাইনাল কর্ডে আটকে যায়। পরিজনেরা তাঁকে আশরাফি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে তাঁকে দুর্গাপুরের মিশন হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মঙ্গলবার মিশন হাসপাতালে নিউরোসার্জেন বিশেষজ্ঞ ডাঃ সত্যজিৎ দাসের নেতৃত্বে চিকিৎসকদের একটি দল অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তাঁর স্পাইনাল কর্ডের ভিতর থেকে গুলিটি বের করেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, তাঁর স্বাস্থ্যের দ্রুত উন্নতি হচ্ছে। বৃহস্পতিবার তাঁকে সাধারণ ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়েছে। ডাঃ সত্যজিৎ দাস বলেন, ‘‘গুলিটি মেরুদণ্ডের ক্ষতি করেছে। সেখানে গুলিটি কয়েক টুকরো হয়ে আটকে যায়। এর জেরে তাঁর পায়ে প্যারালাইসিসের প্রাথমিক বিপদ নজরে আসে। পা দুর্বল হয়ে যায়। তবে অস্ত্রোপচার করে গুলি বের করা এবং পরবর্তী টানা চিকিৎসায় তাঁর স্বাস্থ্যের যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। হাসপাতাল কর্মীদের সাহায্য নিয়ে তিনি এখন হাঁটতে পারছেন। শীঘ্র তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দিয়ে দেওয়া হবে।’’

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt