প্রতিযোগিতার দৌড়ে আত্মঘাতীর সংখ্যা বাড়ছে কোটায়!

দুর্গাপুর দর্পণ ডেস্ক, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩: রুটি খাওয়ার আগেই আত্মহত্যা করলেন ছাত্রী। কতটা মানসিক চাপে ছিলেন তিনি? মেডিক্যালের প্রবেশিকা পরীক্ষার প্রস্ততি নিতে গিয়ে এ কী ঘটালেন ঝাড়খণ্ডের রাঁচীর বাসিন্দা ১৬ বছর বয়সি এক ছাত্রী?

জানা গিয়েছে, রাজস্থানের কোটা শহরে মেডিক্যালের প্রবেশিকা পরীক্ষা (নিট)-র জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন রাঁচীর বাসিন্দা। থাকছিলেন সেখানের একটি হস্টেলে। মৃত্যুর কারণ জানতে দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্যে অনেকটাই এগিয়ে কোটা। এমনটাই মত অভিভাবকদের। ডাক্তারির মত উজ্জ্বল ভবিষ্যতের আশায় সন্তানকে তারা পাঠাচ্ছেন কোটায়। প্রতি বছর শয়ে শয়ে ছেলে মেয়ে এই শহরে গিয়ে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছে। অভিযোগ, কোটায় পড়ুয়াদের উপর অত্যাধিক চাপে রাখা হচ্ছে। সঙ্গে তুমুল প্রতিযোগীতা। এই চাপ বাচ্চাদের অনেকেই নিতে পারছে না। ফলে আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়ছে এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলিতে।

সূত্রের খবর, কোটায় এই বছরে এখনও পর্যন্ত ২৩ জন পড়ুয়া আত্মঘাতী হয়েছেন। তদন্তে এই মৃত্যুর ঘটনা আত্মহত্যা বলে প্রমাণিত হলে, সংখ্যাটি বেড়ে হবে ২৪। কোটার কোচিং ইনস্টিটিউটগুলিকে নোটিশ দিয়ে সপ্তাহে একদিন ছুটির দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় প্রসাশন। এছাড়াও হস্টেল এবং‌ হোটেল কর্তৃপক্ষকে যত শীঘ্র সম্ভব স্প্রিং দেওয়া ঝুলন্ত পাখা লাগানোর নির্দেশ দেয় প্রশাসন। তার পরেও আত্মহত্যার ঘটনা চিন্তায় ফেলছে প্রশাসনকে।

 

Leave a Comment

error: Content is protected !!
mission hospital advt