নিজের সন্তান নয়, এই সন্দেহে ৮ মাসের শিশুকে থেঁতলে মারলো বাবা!

১০ মিনিট পেরিয়ে যাওয়ার পরেও বাড়ি ফিরে আসছে না দেখে মা মমতা সন্তানকে খুঁজতে বের হয়। তার কিছুক্ষণ পর বাবা অজয় সন্তানকে ছাড়াই বাড়ি ফিরে আসে।

——————————————-

দুর্গাপুর দর্পণ, দুর্গাপুর, ২৯ নভেম্বর ২০২৩: চরম মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে গেল পশ্চিম বর্ধমান জেলার (Paschim Bardhaman) দুর্গাপুরের অন্ডাল থানার বহুলার মতিবাজারে। নিজের সন্তান নয় এই সন্দেহে ৮ মাসের শিশুকে থেঁতলে মারলো বাবা!

জানা গিয়েছে, বুধবার দুপুরে অন্ডালের বহুলার মতিবাজারের অজয় ভূঁইয়া ৮ মাসের শিশু সন্তানকে ঘোরাতে নিয়ে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে  বেরিয়ে যায়। ১০ মিনিট পেরিয়ে যাওয়ার পরেও বাড়ি ফিরে আসছে না দেখে মা মমতা সন্তানকে খুঁজতে বের হয়। তার কিছুক্ষণ পর বাবা অজয় সন্তানকে ছাড়াই বাড়ি ফিরে আসে।

অজয় স্ত্রীকে জানায়, ছেলেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। মায়ের চিৎকার শুনে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। মমতা তাঁদের নিয়ে ছোট্ট স্বরাজকে খুঁজতে বের হয়। এরপর পাশের ফাঁকা মাঠের ধারে রক্তাক্ত অবস্থায় পাওয়া যায় স্বরাজকে। মাথা থেঁতলানো। খবর দেওয়া হয় অন্ডাল থানার পুলিশকে। পুলিশ এসে আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বরাজকে উদ্ধার করে প্রথমে রানিগঞ্জ প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এবং সেখান থেকে আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পুলিশ অভিযুক্ত অজয়কে আটক করেছে। মৃত স্বরাজের জেঠিমা প্রিয়া অভিযোগ করেন, অজয়ের সঙ্গে মমতার ঝগড়া লেগেই থাকে ‘সন্তান কার’ তা নিয়ে। অজয় দাবি করত, সন্তান তার নয়। মত্ত অবস্থায় থাকে পেশায় দিন মজুর অজয়। বুধবার দুপুরে স্বরাজ ঘুম থেকে উঠেছিল। তখনই অজয় তাকে নিয়ে ঘুরতে যায়। অভিযোগ, ফাঁকা জায়গায় সন্তানকে ভারী পাথর দিয়ে থেঁতলে খুন করে। অন্ডাল থানায় বাবার বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে মা।

এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকা জুড়ে। পুলিশ অজয়কে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। শুধুই কি ‘সন্তান কার’ এই দ্বন্দ্বেই বাবার হাতে নৃশংসভাবে খুন হতে হলো শিশুকে? না এর পিছনে রয়েছে অন্য কোনও রহস্য, পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। (বিশেষ বিশেষ ভিডিও দেখতে DURGAPUR DARPAN ইউটিউব চ্যানেলটিও সাবস্ক্রাইব করুন)।

Leave a Comment

error: Content is protected !!